ফুলবাড়িয়ায় পৃথক পৃথক ৩টি ঘটনায় ছেলের হাতে মা সহ ৩ জন খুন

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় পৃথক পৃথক ৩টি ঘটনায় ছেলের হাতে মা সহ ৩জন খুন হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল শনিবার এসব ঘটনা ঘটে। নিহত পরিবার ও এলাকাবাসী ...


ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় পৃথক পৃথক ৩টি ঘটনায় ছেলের হাতে মা সহ ৩জন খুন হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল শনিবার এসব ঘটনা ঘটে। নিহত পরিবার ও এলাকাবাসী এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে।
গতকাল শনিবার ভোর ৪টার দিকে উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের যমুনারপাড় এলাকায় মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলে আলম মিয়ার হাতে মা আম্বিয়া খাতুন (৬০) খুন হয়েছে। স্থানীয় মো. আব্দুর রহমান জানান, তাদের বাড়ি থেকে এক আত্মীয় বিদেশে যাওয়ার কারণে শনিবার ভোররাত ৩টার দিকে আলম ও তার মা আম্বিয়া ঘুম থেকে ওঠে। এরপর ৪টার দিকে বাড়ি থেকে প্রবাসী ওই আত্মীয় রওনা হয়। এ সময় আলম কাছে থাকা আকাশমণি গাছের লাকড়ি দিয়ে তার মাকে মাথায় আকস্মিক আঘাত করে। এতে তার মা ঘটনাস্থলেই নিহত হন। প্রতিবেশীরা ছেলেকে আটক করে থানায় খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে এবং ঘাতক ছেলেকে থানায় নিয়ে যায়।


স্থানীয় লোকজনের উদ্বৃতি দিয়ে ফুলবাড়িয়া থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ কবিরুল ইসলাম বলেন, ‘ছেলে মানসিক ভারসাম্যহীন। তবে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কিছুই বলা যাচ্ছে না।’ এ ঘটনায় ঘাতক ছেলেকে আটক করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।


উপজেলার বরুকা নামাপাড়া আয়মন নদীর পাড় থেকে সাইদুল ইসলাম সিফাত (১০) নামে এক শিশুর ক্ষতবিক্ষত লাশ শনিবার সকাল ১০ টার দিকে পুলিশ উদ্ধার করে। সিফাত ঐ গ্রামের ভ্যান চালক এনামুল হকের পুত্র। নিহত শিশুর পরিবার ও পুলিশ জানায়, শুক্রবার বাড়ীর পাশের মসজিদে সিফাত নামাজ পড়তে যায়। মসজিদে সিফাতের সাথে নূরুল ইসলামের পুত্র মিনহাজের ঝগড়া হয়৷ শিশুর ঝগড়াকে কেন্দ্র করে নূরুল ইসলাম এনামুলকে মারধর করে। রাতে এনামুলের শিশুপুত্র সিফাত মসজিদে নামাজ পড়তে গেলে মসজিদ থেকে নিখোঁজ হয়। পর দিন শনিবার সকালে আয়মন নদীর পাড়ে শিশুর ক্ষতবিক্ষত মরদেহ পাওয়া যায়।
নিহত শিশুর চাচা হাবিবুল্লাহ জানান, আমরা গরিব মানুষ। 


জানামতে আমাদের কোন শত্রু নাই। সিফাতের ঘাড় মাটকানো ছিল। শরীরের বিভিন্ন স্থানে মাংস বিহীন ছিল। আমাদের ধারনা মসজিদের ঝগড়াকে কেন্দ্র করেই এ হত্যাকান্ড ঘটেছে।
ফুলবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ কবিরুল ইসলাম জানান, নিহত শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত চলছে।


শিবগঞ্জ টু কেশরগঞ্জ রাস্তার বৈলাজান কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠের সামনে অটোভ্যান চাপায় তানহা (৩) নামের এক শিশু নিহত হয়েছে। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তানহা একই উপজেলার কালাদহ ইউনিয়নের শুশুতি গ্রামের ঔষধ কোম্পানীর রিপ্রেজেনটেটিভ বাবুল মিয়ার মেয়ে।


পরিবার সূত্রে জানা যায়, তানহা শুক্রবার বৈলাজান গ্রামে নানার বাড়ীতে বেড়াতে আসে। শনিবার দুপুরের দিকে নানার বাড়ীর সামনে রাস্তায় অপর বান্ধবীর সাথে আইসক্রীম কিনে রাস্তা পার হবার সময় অটোভ্যানের চাপায় গুরতর আহত হয়। দ্রুত তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে তানহা মারা যায়।
ফুলবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ কবিরুল ইসলাম জানান, নিহত পরিবার মামলা মোকাদ্দমা করবে না বিধায় লাশ বাড়ীতে নিয়ে গেছে।


(collected)

Related

ফুলবাড়িয়া 524730959223200870

সর্বশেষ খবর

    ফেসবুক


    item