ময়মনসিংহে বিশ্ব পানি দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা

ময়মনসিংহে “বিশ্ব পানি দিবস” উপলক্ষে র‌্যালী, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানমালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল ২২ মার্চ শুক্রবার দিন ব্যাপী বি...


ময়মনসিংহে “বিশ্ব পানি দিবস” উপলক্ষে র‌্যালী, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানমালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল ২২ মার্চ শুক্রবার দিন ব্যাপী বিভাগীয় শহর ময়মনসিংহে বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দেলন ময়মনসিংহ জেলা শাখার উদ্যোগে এ অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়। সকালে বিশ্ব পানি দিবস উপলক্ষে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালির মাধ্যমে অনুষ্ঠারমালার সূচনা করা হয়।
র‌্যালীটি ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব হতে শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে টাউন হল প্রাঙ্গনে গিয়ে শেষ হয়। ময়মনসিংহ টাউনহল তারেক স্মৃতি মিলনায়তনে বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলন ময়মনসিংহ জেলা শাখার সভাপতি মো. ইকরাম এলাহী খানের সভাপতিত্বে অনষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মজিবুর রহমান হাওলাদার ।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ নদী কমিশনের সার্বক্ষনিক সদস্য ড. মোঃ আলাউদ্দিন, বিশিষ্ট নদী গবেশক ও লেখক মাহবুব সিদ্দিকী, ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইবুসুফ খান পাঠান,সাংগঠনিক সম্পাদক বাবুল হাসান প্রমুখ।
এর আগে ১৭ দফা দাবী সম্বলীত নদী ও পানি বিষয়ক স্মারক বক্তব্য পাঠের মাধ্যমে আলোচনা সভার শুরু করেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য্য ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম । আনুষ্ঠানমালার উদ্ভোধন করেন বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মোঃ আনোয়ার সাদাত।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মজিবুর রহমান হাওলাদার বলেন ব্রহ্মপুত্র নদ খননের জন্য ৪ হাজার কোটি টাকার বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এ টাকার সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। এ দিকে সকল সচেতন নাগরিকের সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। ড. মোঃ আলাউদ্দিন বলেন সারা বিশ্বে পানির ৩৭ স্তর রয়েছে যার মধ্যে ভারত ও বাংলাদেশ ২১তম পানির স্তর ব্যবহার করছে। পানির স্তর দিন দিন নিচের দিকে চলে যাচ্ছে।
এত আমরা এক ভয়াবহ পরিণতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। এসময় তিনি একটি পানির বোতল হাতে নিয়ে উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে বলেন যত বোতল জাত পানি তত রোগ-বালাই। তাই আসুন আমরা সকলে মিলে প্রাকৃতিক সুপেয় পানির আঁধার গুলোকে রক্ষা করি,সুস্থ্য থাকি।
ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইউসুফ খান পাঠান বলেন-অবৈধ ভাবে নদীর জায়গা দখলের হিড়ীক পরে গেছে চার দিকে, এ সকল অবৈধ দখল দারদের উচ্ছেদ করে নদীর জায়গ-জমি উদ্ধার করতে হবে।তিনি আরও বলেন যখন দেখি অবৈধ দখলদারদেরকে উচ্ছেদ করা হচ্ছে ও তাদের বহুতল ভবন ভাঙ্গা হচ্ছে তখন আমার মন আনন্দে ভরে যায়।
বিকেলে ময়মনসিংহ লোককৃষ্টি সাংস্কৃতিক গোষ্ঠি, এনপিএস গণমাধ্যম ও মানবাধিকার সংস্থা,ময়মনসিংহ বিভাগ এর মানবাধিকার কর্মিবৃন্দে পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধমে শেষ হয়।

Related

ময়মনসিংহ 1190893480168513016

সর্বশেষ খবর

    এক ক্লিকে বিভাগের খবর

    ফেসবুক


    item